ডাউনলোডিং সফটওয়্যার ডাউনলোড করুন 12টি ফ্রী

ডাউনলোডিং সফটওয়্যার : অনলাইন থেকে আমরা অনেকেই অডিও-ভিডিও ফাইল ডাউনলোড করতে চাই কিন্তু ভালো কোনো ডাউনলোডিং সফটওয়্যার না থাকার কারনে কাঙ্ক্ষিত ফাইলটি আর ডাউনলোড করা হয় না। তাই এখানে আমি সেরা কতগুলো ডাউনলোডিং অ্যাপস তালিকাভুক্ত করেছি, যেকোনো ধরণের ফাইল ডাউনলোড করার জন্য। আপনি যদি ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য কোনো এপস খুঁজে না পান তাহলে এখানে দেওয়া সফটওয়্যারগুলো ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

এখানে তালিকাভুক্ত হওয়া সফটওয়্যারগুলো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য প্রযোজ্য। কম্পিউটার দিয়ে অনলাইন থেকে যেকোনো ধরণের ফাইল ডাউনলোড করা অনেক সহজ। কিন্তু মোবাইল ফোন দিয়ে কোনো কিছু ডাউনলোড করতে গেলে অনেক সমস্যা পরতে হয়।

তাই এই লিস্টের অ্যাপস ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন। খুব সহজেই ইউটিউব ভিডিওসহ আরো নানা রকম ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন সম্পূর্ণ হাই-স্পিডে।

সাধারণত ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করে গ্যালারিতে আনা যায় না, তবে এখানকার ডাউনলোডিং সফটওয়্যার দিয়ে খুব সহজেই মেমোরি কার্ডে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

ডাউনলোডিং সফটওয়্যার

এই তালিকার সকল ধরণের ডাউনলোডিং এপস গুগল প্লে-স্টোরে পাওয়া যাবে না। কিছু ভালো মানের Downloading software ইন্টারনেটে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

প্রতিটি ডিভাইসে ইন্টারনেট ব্রাউজার ও গুগল ক্রোম ব্রাউজারটি দেওয়া থাকে। কিন্তু এইসব ব্রাউজারের মাধ্যমে কোনো কিছু ডাউনলোড করা হলে তেমন স্পিড পাওয়া যায় না। তাই এর জন্য প্রয়োজন ডাউনলোড ম্যানাজার।

সারা বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ডাউনলোডিং সফটওয়্যার পাওয়া যায় পিসির জন্য, যার নাম হলো “ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানাজার”।

অ্যান্ড্রয়ের জন্য এর পরিবর্তে পাওয়া যায় অ্যাডভান্সড ডাউনলোড ম্যানেজার। যেটা আইডিএম এর মতোই কাজ করে। যেকোনো ধরণের ফাইল খুব স্পিডে নামানো যায়।

Advanced Download Manager – ডাউনলোডিং অ্যাপস

Advanced Download Manager ডাউনলোড করার সফটওয়্যার

গুগল প্লে-স্টোরে থাকা সব থেকে শক্তিশালী ডাউনলোডিং সফটওয়্যার হলো অ্যাডভান্সড ডাউনলোড ম্যানেজার। সংক্ষিপ্তে এই অ্যাপটির নাম এডিএম বলা হয়। আপনি ইন্টারনেট থেকে যেকোনো ধরণের ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন সবচেয়ে বেশি গতিতে। যারা ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য উপায় খুজচ্ছেন তাদের জন্য এই সফটওয়্যারটি বেস্ট।

আপনি চাইলে একই সাথে ৩টি ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন এই সফটওয়্যার দিয়ে। আপনার ডিভাইসে থাকা যেকোনো ব্রাউজার থেকে ডাউনলোড লিংক কপি করে এই অ্যাপের মধ্যে পেস্ট করে ডাউনলোড করতে পারবেন।

অথবা আপনি চাইলে এই অ্যাপের ব্রাউজ করে কাঙ্ক্ষিত ফাইলটি ডাউনলোড করতে পারবেন। আপনি চাইলে নিজের মতো করে অ্যাপটির ডাউনলোডিং স্পিড কমাতে ও বাড়াতে পারবেন।

এছাড়াও সফটওয়্যারটির মধ্যে আরো নানা রকম ফিচার পাবেন যেগুলোর মাধ্যমে আপনার ডাউনলোড করার প্রক্রিয়া আরো সহজ হয়ে যাবে।

কোনো ফাইল ডাউনলোড করার সময় নির্দিষ্ট ফোল্ডার পছন্দ করে নিতে পারবেন। আপনার মেমোরি কার্ডের যেকোনো স্থানে ডাউনলোড কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন। এটার মাধ্যে আপনি জনপ্রিয় সংগীত প্লাটফর্মগুলো থেকে এমপি থ্রি গান ডাউনলোড করার সুযোগ পাবেন।

এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য অ্যাপটি প্লে-স্টোরে বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। এটার মাধ্যমে ২ জিবি ফাইলের চেয়েও আরো বড় ধরণের ফাইল নামাতে পারবেন।

এই অ্যাপটির আরো একটি সুবিধা হলো আপনার ডিভাইসের চার্জ কমে গেলে ডাউনলোড করা অটোম্যাটিক অফ হয়ে যাবে। পুনরায় ডিভাইসে চার্জ থাকলে আবার ডাউনলোড শুরু করতে পারবেন থেমে যাওয়া স্থান থেকে।

Download

Loader Droid download manager

Loader Droid download manager

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য যে ব্রাউজারগুলো রয়েছে সেগুলোর মাধ্যমে খুব সহজেই এই সফটওয়্যার দিয়ে ডাউনলোড করা যাবে। লোডার ড্রইড ডাউনলোড ম্যানাজার সফটওয়্যারটি ডিজাইন করা হয়েছে মূলত স্মার্ট ফোনের জন্য। এটা অনেকটা এডিএম ডাউনলোডিং সফটওয়্যার এর মতো। এটার মাধ্যমে আপনি সুপার গতিতে যেকোনো কিছু অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনার মোবাইলের মেগাবাইট যদি শেষ হয়ে যায় তাহলে ডাউনলোড অফ করে রাখতে পারবেন। যখন মেগাবাইট থাকবে আবার ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন। এটার মাধ্যমে খুব সহজে ডাউনলোড কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।

প্লে-স্টোরে এই অ্যাপটির রিভিউ রেটিং অনেক ভালো। আর এই অ্যাপস আপনি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন। এটার মাধ্যমে ডাউনলোড করার সময় আপনার ফাইলের সাইজ ও ডাউনলোডের সংখ্যা দেখতে পারবেন।

আপনি আরো জানতে পারবেন ফাইলের ফরম্যাট সম্পর্কে। যেকোনো ফাইল ১০০% ডাউনলোড কমপ্লিট হলে আপনি নিশ্চিত হতে পারবেন ফাইলটি ডাউনলোড হয়েছে। কোনো কারনে যদি ইন্টারনেট কানেকশন অফ হয়ে যায় এবং আবার যদি ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া হয় তাহলে অটোম্যাটিক ডাউনলোডিং শুরু হয়ে যাবে।

Download

IDM: Free Video, Movie, Music & Torrent downloader

IDM ডাউনলোডিং ফাইল

এন্ড্রয়েড মোবাইলের আরো একটি জনপ্রিয় ডাউনলোডিং সফটওয়্যার হলো আইডিএম। প্লে-স্টোরে এই অ্যাপটির বেশ নামডাক রয়েছে। অন্যান্য ডাউনলোডিং অ্যাপের মতোই এটি কাজ করে, তবে এটার একটি বেশি সুবিধা হলো এটার মাধ্যমে আপনি টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনি একটি অ্যাপের মাধ্যমে সব ধরণের ফাইল ফরম্যাট ডাউনলোড করতে পারবেন। এটার মাধ্যমে একই সাথে ৫টি ফাইল ডাউনলোড করার মতো সমর্থন করে।

আপনার ডাউনলোড লিংকের মধ্যে যদি কোনো থার্ড পার্টি লিংক থাকে তাহলে সেটা এই মাধ্যমে অটোম্যাটিক ট্র্যাক করে ব্লক করা হবে।

এই অ্যাপটির প্রো ভার্শন ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে অর্থ খরচ করতে হবে। আপনি চাইলে প্লে-স্টোর থেকে ফ্রি ভার্শন ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

আপনি ক্রোম ব্রাউজার বা যেকোনো ব্রাউজারের মাধ্যমে আপনার কাঙ্ক্ষিত ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। অথবা আপনি ডাউনলোড লিংক কপি করে এই অ্যাপের মধ্যে পেস্ট করলেই ডাউনলোডিং শুরু হয়ে যাবে।

Download

µTorrent®- Torrent Downloader

µTorrent ডাউনলোডিং অ্যাপস

অনলাইনে এমন কিছু ফাইল রয়েছে যেগুলো কোনো ব্রাউজারের মাধ্যমে ডাউনলোড করা যায় না। তবে সেগুলো ডাউনলোড করতে হলে আলাদা ভাবে সফটওয়্যারের প্রয়োজন পড়ে।

তাই আপনি কোনো টরেন্ট সাইট থেকে বিভিন্ন ধরণের ফাইল ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই সফটওয়্যারটি ইন্সটল করতে পারেন। টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করার জন্য এখন পর্যন্ত গুগল প্লে-স্টোরে এটা সব থেকে জনপ্রিয়।

আপনারা হয়তো জানেন টরেন্ট ফাইলগুলো অনেক উচ্চ গতিতে ডাউনলোড করা যায়। আর এটার মাধ্যমেও আপনি উচ্চ গতিতে টরেন্ট ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন আপনার ডিভাইসের মধ্যে।

আপনি যদি এই অ্যাপটি সম্পূর্ণ ভার্শন ডাউনলোড করতে চান তাহলে আপনাকে ক্রয় করতে হবে। মনে রাখবেন এটার মাধ্যমে শুধু টরেন্ট ফাইলগুলোই ডাউনলোড করতে পারবেন।

কোনো টরেন্ট ডাউনলোড করার জন্য আপনি নির্দিষ্ট স্থান পছন্দ করে ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন। অ্যাপটির মাধ্যমে ডাউনলোড করলে আপনি বিভিন্ন ধরণের সুবিধা পাবেন যেমন- ফাইল সম্পূর্ণ ডাউনলোড হওয়ার আগেই যতটুকু ডাউনলোড হয়েছে সেটা ওয়াচ করা ও ডার্ক মোডে অ্যাপটি ব্যবহার করা ইত্যাদি।

সর্বশেষ জুন মাসে অ্যাপটি আপডেট হওয়ার পর ১১ মেগাবিট হয়েছে। অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের সর্বনিন্ম ৫.০ থেকে তার উপরের ভার্শনে অ্যাপটি ব্যবহার করা যাবে। এই অ্যাপটি ডেভেলপ করেছে BitTorrent কোম্পানি, যারা প্লে-স্টোরে জনপ্রিয় টরেন্ট অ্যাপগুলো তৈরি করে থাকে।

Download

All downloader – ডাউনলোডিং সফটওয়্যার

All Downloader সেরা ডাউনলোডিং সফটওয়্যার

আপনি যদি ফেসবুক থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে চান তাহলে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারেন। যেকোনো জায়গা থেকে আপনি বিদ্যুৎ গতিতে ডাউনলোড করতে পারবেন।

আপনি ভিডিও ফাইলগুলো এইচডি ডাউনলোড করতে পারবেন। তাছাড়া যারা ইউটিউব বা বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে কোনো কিছু ডাউনলোড করতে চান তারাও এই অ্যাপের মাধ্যমে করতে পারবেন। অ্যাপটি সহজেই ব্যবহারযোগ্য। অ্যাপটির মাধ্যমে সরাসরি মেমোরি কার্ডে ভিডিও সংগ্রহ করা যাবে।

আপনার কোনো ডাউনলোড করা ভিডিও যদি হাইড করতে চান তাহলে সেটাও করতে পারবেন একই অ্যাপের মাধ্যমে। ডাউনলোড করার সময় চাইলে সেটা স্টপ করে রাখতে পারবেন এবং পরবর্তি সময় রিসাম করে আবার ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন।

আপনি চাইলে ভিডিও ডাউনলোড করার আগে ভিউ করতে পারবেন। আর এই অ্যাপের মাধ্যমে বিভিন্ন সাইটে সরাসরি ব্রাউজ করা যাবে। আপনি ওয়াইফাই ও মোবাইলের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ফাইলগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন।

একই সাথে অনেকগুলো ফাইল ডাউনলোড করার অপশন পাবেন। আপনি চাইলে অ্যাপ থেকে বাহির হয়েও ব্যাকগ্রাউন্ডে ডাউনলোডিং করতে পারবেন।

৯.৪ মেগাবাইটের এই অ্যাপটি লক্ষ লক্ষ এন্ড্রয়েড ইউজাররা ডাউনলোড করে ব্যবহার করছে। আমেরিকার একটি সফটওয়্যার কোম্পানি এই অ্যাপটি তৈরি করেছে। সম্পূর্ণ ভাইরাসমুক্ত ডাউনলোডিং সফটওয়্যার এটি। বিনামূল্যে প্লে-স্টোরে পাওয়া যাবে।

Download

Download Accelerator Plus

Download Accelerator Plus

খুব সহজেই যেকোনো কনটেন্ট ডাউনলোড করার জন্য এটা অন্যতম একটি এপস। এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি এসডি কার্ডে সরাসরি ডাউনলোড করতে পারবেন। সফটওয়্যারটির মধ্যে একের অধিক ট্যাব রয়েছে ও এটার মাধ্যমে ব্রাউজও করার সুযোগ পাবেন। এছাড়া রয়েছে অটো রিজিউম সিস্টেম।

শুধু তাই নয় আপনি নোটিফিকেশন বারের মধ্যে ডাউনলোডের পার্সেন্টেজ দেখতে পারবেন। আপনার কোনো কন্টেন্ট ডাউনলোড করার সময় যদি ইন্টারনেট থেকে থ্রেড আসে তাহলে সেটা বাধা রোধ করতে সক্ষম হবে এই অ্যাপটি।

এই ডাউনলোডিং সফটওয়্যার ডিজাইন করা হয়েছে খুব সুন্দর ও উন্নতভাবে। অ্যাপটির মাধ্যমে আপনার ডাউনলোডের গতি সীমা পরিবর্তন করতে পারবেন।

আপনি যদি অ্যাপটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে থাকেন তাহলে বিজ্ঞাপনের শিকার হতে পারেন। আপনি একসাথে কয়টি কন্টেন্ট ডাউনলোড করতে চান সেটা নিজের মতো করে সেট করতে পারবেন। আপনি চাইলে যেকোনো ডাউনলোডিং লিংক কপি করে এটার মধ্যে পেস্ট করে ডাউনলোড করতে পারবেন।

তাছাড়া এই অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরেই আপনার জনপ্রিয় ব্রাউজার গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ার ফক্স ইত্যাদি ব্রাউজারগুলোর মধ্যে ডাউনলোড করার অপশন পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি কোনো কিউ আর কোড স্ক্যান করে ডাউনলোড করতে চান তাহলে সেটাও আপনার জন্য উপলব্ধ রয়েছে।

প্লে-স্টোরে অ্যাপটির জনপ্রিয়তা অনেক ভালো তাই এটা এখানে যুক্ত করা হয়েছে। আপনি চাইলে এই ডাউনলোডিং সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আপনার কাঙ্ক্ষিত কনটেন্টটি ডাউনলোড করতে পারেন।

Download

GetThemAll – ডাউনলোডিং সফটওয়্যার

GetThemAll Any File Downloader

আপনার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কোনো কিছু ডাউনলোড করার জন্য বা কোনো ওয়েবসাইট ব্রাউজ করার জন্য এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি একের অধিক যেকোনো ধরণের ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইট ভিজিট করা যাবে।

আপনার মোবাইলে যদি কোনো ব্রাউজার না থাকে তবে এই অ্যাপের মাধ্যমে ব্রাউজ করতে পারবেন এবং কোনো প্রয়োজনীয় ফাইল মেমোরি কার্ডে সংগ্রহ করার জন্য ডাউনলোড করতে পারবেন।

অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি অনেক ফাস্ট ডাউনলোড কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন। আপনার ডাউনলোডিং কার্যক্রম সম্পন্ন করার জন্য ইউজারদের সুবিধার্থে ব্র্যাকগ্রাউন্ড মোড রয়েছে।

কিন্তু ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে এর কিছু বিধিনিষেধ থাকায় এই অ্যাপের মাধ্যমে সেগুলো ডাউনলোড করা সম্ভব না।

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ৫.০ ভার্শনের নিচে কোনো ডিভাইসে সাপোর্ট করবে না এটি। কিন্তু এটা ডাউনলোড করার জন্য আপনার কোনো অর্থ খরচ করতে হবে না। প্লে-স্টোরে বিনামূল্যে অ্যাপটি উপব্ধ রয়েছে।

Download

All Video Downloader

All Video Downloader

প্লে-স্টোর থেকে লক্ষ লক্ষ মানুষ এই অ্যাপটি ডাউনলোড করেছে। তবে অ্যাপটির নাম দেখেই বুঝতে পারছেন এটা শুধু ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য তৈরি করা হয়েছে।

অ্যাপটির মাধ্যমে যেকোনো ওয়েবসাইট বা ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করে অফলাইনেই দেখতে পারবেন। অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি ব্রাউজ করতে পারবেন ও প্রয়োজন মতো ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য বাটন পাবেন।

যেটার মাধ্যমে ক্লিক করেই আপনি ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন।

আপনি যেকোনো ধরণের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন। ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য বিভিন্ন ফরম্যাট পাবেন যেগুলো থেকে আপনার পছন্দের অপশন সিলেক্ট করে ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন। আপনি একই সময় ভিডিও ডাউনলোডিং শুরু করতে পারবেন। আপনি চাইলে কোনো ওয়েবসাইটের ভিডিও লিংক কপি করে এটার মাধ্যমে ডাউনলোড করতে পারবেন।

কিন্তু আপনি ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন না। ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য কোনো লিগেল অপশন এখনো পাওয়া যায়নি।

ইউটিউবের ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য তাদের বিধিনিষেধ রয়েছে। কিন্তু যারা ইউটিউবের ভিডিও মেমোরি কার্ডে ডাউনলোড করে থাকে সেটা মূলত ইউটিউবের নিয়মের বাইরে থেকে হয়ে থাকে।

আপনার কাছে যদি অ্যাপটি ভালো লাগে তাহলে ফ্রিতে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন।

Download

Free Video Downloader – ডাউনলোডিং অ্যাপস

Free Video Downloader

খুব সহজেই ইন্টারনেট থেকে ভিডিও ও মিউজিক ডাউনলোড করার জন্য এই অ্যাপটি ইন্সটল করে নিতে পারেন। এটার সকল ধরণের ফরম্যাট সাপোর্ট করবে।

অ্যাপটির মাধ্যমে কোনো ব্রাউজারে ভিজিট করে ভিডিও পাওয়া গেলে সেটা অটোম্যাটিক শনাক্ত করা হবে এবং ডাউনলোড করার অপশন পাওয়া যাবে। এটা অনেক শক্তিশালী ডাউনলোড ম্যানাজার এবং এর মাধ্যমে সুপার ফাস্ট স্পিডে ভিডিও ডাউনলোড করা সম্ভব।

আপনি ভিডিওগুলো ডাউনলোড করতে পারবেন ফুল এইচডি এবং অ্যাপের মধ্যেই প্লে করে দেখতে পারবেন।

এই অ্যাপটির নাম ফ্রি ভিডিও ডাউনলোডের হলেও এটার মাধ্যমে সব ধরণের ফর্মেট ফাইল ডাউনলোড করা যাবে। আপনার ডাউনলোড করা ফাইল নিজের মতো করে পাসওয়ার্ডের মাধ্যমে লক করে রাখতে পারবেন।

আপনি বড় ধরণের ফাইলগুলো খুব সহজেই মেমোরি কার্ডে সংরক্ষণ করতে পারবেন এবং পছন্দের ওয়েবসাইট বুকমার্ক করতে পারবেন। এই অ্যাপটির সাইজ হলো মাত্র ৯ মেগাবাইট যেটা আপনার মোবাইলে খুব স্মুথ ভাবে কাজ করবে। এই অ্যাপটি তৈরি করেছে Simple Design Ltd, যাদের প্রত্যেকটি অ্যাপস প্লে-স্টোরে বেশ মার্কেট পেয়েছে।

Download

Video Downloader

Video-Downloader

তালিকার ১০ নাম্বারের এই অ্যাপটির নামের সাথে আরেকটি অ্যাপস মিলে গেলও দুটির মধ্যে বেশ পার্থক্য রয়েছে। প্লে-স্টোরে ডাউনলোডিং সফটওয়্যার এর মধ্যে এটা সর্বাধিকবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের কাছে এটা দুর্দান্ত একটি ডাউনলোডিং অ্যাপস।

অ্যাপটি তৈরি করেছে আমেরিকার একটি অ্যাপস ডেভেলপার কোম্পানি যার নাম InShot Inc। এটার ডাউনলোড করার দিক দিয়ে যেমন এগিয়ে এর রিউভিউ রেটিং-ও বেশ ভালো।

সোশ্যাল মিডিয়া ক্লিপস থেকে শুরু করে আপনি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। সব ধরণের ফরম্যাট সাপোর্ট করবে ১০০% ফ্রি।

অ্যাপটির মাধ্যমে ব্রাউজ করার সুবিধাও রয়েছে। কোনো ওয়েবসাইট বা ভিডিওর মধ্যে বিজ্ঞাপন নিয়ে কোনো ঝামেলা হলে আপনি এই অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাড ব্লক করে রাখতে পারবেন।

আপনি আপনার মোবাইলের নেটওয়ার্ক দিয়ে ডাউনলোড করাসহ ওয়াইফাই দিয়েও ডাউনলোড করার সুযোগ পাবেন।

Download

Vidmate – ডাউনলোডিং অ্যাপস

VidMat গান ডাউনলোড সফটওয়্যার

আপনি যদি অনেক ধরেই ইন্টারনেট ইউজ করে থাকেন তাহলে হয়তো ভিডমেট অ্যাপলিক্যাশনটির নাম শুনেছেন।

বিভিন্ন ধরণের মাল্টিমিডিয়া ওয়েবসাইট যেমন- ইউটিউব, সাউন্ডক্লাউড, মেটাকেফ ও ভিমিও এর মতো বড় ওয়েবসাইটগুলো থেকে ডাউনলোড করার সুযোগ পাওয়া যায়।

আপনি সবচেয়ে দ্রুত ও সহজ ভাবে অডিও-ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে। আপনি অরিজিনাল লিংক ও বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার ভিডিও লিংক শেয়ার করে এই অ্যাপের মাধ্যমে ডাউনলোড করতে পারবেন। অ্যাপলিকেশনটির মধ্যে সকল ফরমেটের মাল্টিমিডিয়া ফাইল ডাউনলোড করা যাবে।

ইউটিউব ভিডিওগুলো আপনি এমপি থ্রি ফাইলেও ডাউনলোড করতে পারবেন। এই অ্যাপের সবথেকে বড় সুবিধা হলো আপনি নানা রকম জনপ্রিয় ভিউ হওয়া ভিডিওগুলো ট্রেন্ডিং হিসেবে পাবেন ও চাইলে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করতে পারবেন। অ্যাপটির মধ্যে বায় ডিফল্ট জনপ্রিয় ওয়েবসাইটগুলো যুক্ত করা থাকে।

সুপার ফাস্ট গতিতে আপনি সব ধরণের ফাইল সরাসরি মেমোরি কার্ডে রাখতে পারবেন। আপনি ডাউনলোড করা ফাইল প্রোটেক্ট করে রাখতে পারবেন ও অ্যাপের মধ্যেই অফলাইনে ভিউ করতে পারবেন।

এই অ্যাপটি আপনি প্লে-স্টোরে পাবেন না। কিন্তু এটার মতো প্লে-স্টোরে আরো এপস পাওয়া যায় তবে অরিজিনাল vidmate apk download করার জন্য এর মূল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে।

মোবাইলে কোনো কিছু ডাউনলোড করার জন্য আমার জানা মতে এটা সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আমি এই অ্যাপটি তালিকার ১১ নাম্বারে রাখার কারণ হলো এটা প্লে-স্টোরে পাওয়া যায় না।

Download

Snaptube – ডাউনলোডিং সফটওয়্যার

Snaptube ভিডিও ডাউনলোড সফটওয়্যার

ভিটমেট এর মতো আরো একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হলো স্ন্যাপটিউব। এই অ্যাপটিও প্লে-স্টোর থেকে রিমোভ করে দেওয়া হয়েছে।

এই অ্যাপগুলোর সিকিউরিটি তেমন ভালো না থাকায় গুগল-স্টোরে এগুলো উপলব্ধ নেই। কিন্তু snaptube apk download করার জন্য আপনি প্লে-স্টোরে না যেয়ে এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এটা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

প্লে-স্টোরে এই নামের সফটওয়্যার পাওয়া যাবে কিন্তু এটার মতো অরিজিনাল হবে না। আপনি স্নাপটিউবের মাধ্যমে বিভিন্ন মাল্টিমিডিয়া সাইট থেকে গান, নাটক, সিনেমা ইত্যাদি ধরণের ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের কাছে এটি অন্যতম জনপ্রিয় ডাউনলোডিং সফটওয়্যার। অ্যাপটি অনেকটা ভিডমেটের মতোই কাজ করে। আপনি চাইলে এটা সম্পূর্ণ বিনামূল্যে এর অফিসিয়াল সাইট থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

Download

উপসংহার

স্মার্ট ফোনে বিভিন্ন রকম ফাইল ডাউনলোড করার জন্য এখানে জনপ্রিয় ১২টি ডাউনলোড ম্যানাজার যুক্ত করা হয়েছে। আপনি চাইলে এখান থেকে যেকোনো সফটওয়্যার ডাউনলোড করে ফ্রিতে ইউজ করতে পারেন। এই তালিকার বাইরেও আরো নানা রকম ডাউনলোডিং সফটওয়্যার পাওয়া যায়। আপনার পছন্দ হলে সেগুলোও ইউজ করতে পারেন।

আপনি যদি আপনার বন্ধুদের কাছে আর্টিকেলটি শেয়ার করতে চান তাহলে কোনো ঝামেলা ছাড়াই লিংকটি কপি করে শেয়ার করে দিতে পারেন। আরো কোনো জনপ্রিয় অ্যাপস বা গেমস সম্পর্কে জানতে চাইলে নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

Leave a Comment