প্রয়োজনীয় কিছু apps ডাউনলোড করুন – যা দরকার হবেই

প্রয়োজনীয় কিছু apps : গুগল প্লে-স্টোরে আমরা অনেকই নানা রকম এপস ডাউনলোড করে থাকি । কিন্তু যে সফটওয়্যারগুলো আপনার জন্য ভালো হবে সেগুলো হয়তো আপনি জানেন না । তাই এখানে কিছু গুরুত্বপূর্ণ অ্যাপস এর লিস্ট তৈরি করেছি যেগুলো মোবাইলে ডাউনলোড করে ইউজ করতে পারবেন । অনেক সময় ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন কাজ সমন্ন করতে হয় । তাই আপনি এখানে তালিকাভুক্ত দরকারি apps গুলো ডাউনলোড করে রাখতে পারেন ।

প্রয়োজনীয় কিছু apps

বর্তমান সময় মানুষ স্মার্টফোন দিয়ে নানা ভাবে সময় অপচয় করে থাকে । যেটা চলে গেলে আর পাওয়া যায় না । বিভিন্ন সময় অনেকই ইন্টারনেট ব্যবহার করে বিভিন্ন সমস্যায় পরে জান । এর প্রধান কারন হলো আপনি আপনার ডিভাইসের কোনো সিকিউরিটি বা নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারেননি । তাই যেকোনো ডিভাইসের সর্বপ্রথম কাজ হলো নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ।

তো চলুন আমরা প্রয়োজনীয় কিছু apps গুলো সম্পর্কে ভালো ভাবে জেনে নেই এবং মোবাইলে ইন্সটল করে নেই ।

১। AVG AntiVirus

এন্ড্রয়েডের প্রয়োজনীয় এপস

সর্বপ্রথম আমি একটি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার নিয়েছি । কারণ আমি আগেই বলেছি আপনার ডিভাইসের নিরাপত্তা সবার আগে ।

এই এন্টিভাইরাস ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি নিশ্চিন্তে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন এবং হ্যাকারদের অ্যাটাক থেকে নিজেকে রক্ষ্যা করতে পারবেন ।

এছাড়াও মোবাইল যদি কখনো হ্যাং হয়ে যায় বা স্লো হয়ে যায় তাহলে AVG AntiVirus আপনার খুব কাজে দিবে । এছাড়া ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন সফটওয়ার ডাউনলোড করলে সেটার মাধ্যমেও আপনার ডিভাইসে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারবে, তাই সেই সুযোগ না দিয়ে আপনি আগেই AVG AntiVirus Apps Download করে রাখবেন ।

এই এন্টিভাইরাস এপস রিয়াল টাইম স্ক্যান করতে পারে । ফলে ডিভাইসে যখনই ভাইরাস বা হ্যাকার আক্রমণ করবে ঠিক তখনই সে স্ক্যান করে সেটা থেকে নিরাপদ নিশ্চিত করবে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

তাছাড়া আপনার মোবাইলের মেমোরি কার্ডের স্পেস যদি কমে যায় তাহলে অপ্রয়জনীয় ফাইলগুলো এই এন্টিভাইরাসের মাধ্যমে ডিলিট করে নিতে পারবেন ।

আপনার দরকারী কোনো ফাইল হিডেন বা লক করে রাখতে পারবেন AVG AntiVirus এর মাধ্যমে । প্লে-স্টোরে এটা খুব সহজেই ফ্রিতে পাওয়া যাবে ।

আপনি যেকোনো সময় AVG AntiVirus ডাউনলোড করে মোবাইলে ইন্সটল করতে পারেন । সুতরাং এটা আপনার জন্য সর্বপ্রথম গুরুত্বপূর্ণ apps ।

Download

২। SHAREit – প্রয়োজনীয় কিছু apps

নতুন একটি স্মার্টফোন কেনার পরেই আপনি চাইবেন কারো কাছ থেকে কোনো ফাইল ট্রান্সফার করে নিতে । তাই আপনি যেকোনো ধরনের ফাইল ট্রান্সফার করতে SHAREit Apps Download করুন ।

স্মার্টফোন ইউজ করে কিন্তু SHAREit ইউজ করে নে এমন ব্যাক্তি পাওয়া খুব কঠিন । আগে স্মার্টফোন ছিলো না এবং এইসব উন্নত মানের অ্যাপও পাওয়া যেত না । এরজন্য ইন্টারনেট ছাড়া কেউ দ্রুত কোনো ফাইল আদান-প্রদান করতে পারত না । সবাই ব্লুটুথ ব্যবহার করত ।

কিন্তু বর্তমান মানুষ খুব ব্যস্ত থাকে ব্লুটুথ ব্যবহার করে কোনো ফাইল আদান-প্রদান করে না । সবচাইতে গতিতে ইন্টারনেট ছাড়া কোনো ফাইল ট্রান্সফার করার জন্য SHAREit হলো সবচেয়ে বেস্ট । এন্ড্রয়েড ফোনে সবাই এখন শেয়ারইট ব্যবহার করে সকল ধরনের ফাইল ট্রান্সফার করে থাকে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

সুতরাং আপনারও বিভিন্ন ফাইল আদান-প্রদান করা লাগতে পারে । তাই আপনি SHAREit এপস ডাউনলোড করে মোবাইলে ইন্সটল করে রাখুন । এটা আপনি প্লে-স্টোরে ফ্রিতে পাবেন । আশা করি আপনার কাছে এই অ্যাপটি খুবই ভালো লাগবে ।

আরো পড়ুন – অনলাইন থেকে ফুল এইচডি মুভি ডাউনলোড করুন সম্পূর্ণ ফ্রী

Download

৩। দৈনন্দিন টাকার হিসাব নিকাশ

আপনি যদি দৈনন্দিন অর্থ খরচ করেন ও আয় করে থাকেন তাহলে কোনো ঝামেলা ছড়াই মোবাইলের এই অ্যাপের মাধ্যমে হিসাব নিকাশ করতে পারেন ।

বিশেষ করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও সংসারের বিভিন্ন খরচ বহন করে থাকেন তাদের জন্য এই অ্যাপটি বেশ কাজে আসবে ।

প্রতিদিনের খরচ ও আয় হিসাব করে অবশিষ্ট কত পরিমাণ অর্থ রয়েছে সেটা জেনে নিতে পারবেন ছোট এই “দৈনন্দিন টাকার হিসাব নিকাশ” অ্যাপটির মাধ্যমে ।

এই অ্যাপটি ব্যবহার করার জন্য আপনার কোনো ইন্টারনেট কানেকশনের প্রয়োজন হবে না । মাত্র ৪ মেগাবাইটের এই অ্যাপটি মোবাইলে ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

এটা তৈরি করেছে একজন বাংলাদেশী অ্যাপ ডেভেলপার । ফলে অ্যাপের মধ্যে সবকিছু বাংলায় লেখা রয়েছে ।

Download

৪। বাংলাদেশের সকল আইন

প্রয়োজনীয় অ্যাপ

আমরা সবাই বাঙ্গালি তাই আমাদের উচিৎ বাংলাদেশের সকল আইনকানুন সম্পর্কে জেনে রাখা । আপনি যদি দেশের আইনগুলো সম্পর্কে জেনে রাখতে পারেন তাহলে কোনো বেআইনি কাজ করার সময় ভয় অনুভব করবেন । আর এভাবেই অনেক বেআইনি কাজ বন্ধ হয়ে যাবে ।

কিন্তু সবাই আইন মেনে চলে না বা অনেকে বাংলাদেশের আইন সম্পর্কে জানে না । ফলে না জেনে না বুঝে নানা রকম অন্যায় কাজ করে বসে, ফলে এরজন্য অনেকের নানা রকম বিভ্রান্তিতে পরতে হয় ।

তাই আপনি যদি বাংলাদেশের সকল ধরনের আইন কানুন জানতে চান তাহলে “বাংলাদেশের সকল আইন” সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন ।

Download

৫। Ridmik Keyboard – প্রয়োজনীয় কিছু apps

আমরা স্মার্টফোন ইউজ করার সময় বিভিন্ন মানুষকে টেক্সট করে থাকি । অনেকে ইংলিশে টেক্সট করতে পারে না । তবে যারা বাংলায় টেক্সট করতে চান তাদের জন্য Ridmik Keyboard অ্যাপস সবচেয়ে বেশি ভালো হবে ।

বাংলাদেশের এই কিওয়ার্ড অ্যাপটি ব্যাপকভাবে সারা ফেলেছে । প্লে-স্টোর থেকে লাখ লাখ মানুষ এই অ্যাপ ডাউনলোড করেছে বাংলায় টেক্সট করার জন্য ও লেখালেখি করতে ।

অ্যাপটির মধ্যে বাংলার পাশপাশি ইংলিশেও আরো সহজ ভাবে লেখালেখি করতে পারবেন ও মজার মজার ইমোজি পেয়ে থাকবেন । অ্যাপটি ব্যবহার করে অনেকেরই উপকারে এসেছে ।

কোনো ওয়ার্ড লেখার দরকার হলে আংশিক লেখলেই সাজেশন পেয়ে যাবেন ফুল ওয়ার্ডের । এতে আপনার কোনো বানান ভুল হবে না । সুতরাং এই অ্যাপটিও আপনার অনেক উপকারে আসবে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

Download

৬। Google Translate

গুগল ট্রান্সলেট সফটওয়্যারটি আপনার খুব প্রয়োজনে আসবে । কারণ এটা একটি ট্রান্সলেটিং অ্যাপস । বর্তমানে গুগল এই অ্যাপটি চালু করে বহু মানুষের উপকার করেছে ।

বিশেষ করে যারা ইংরেজিতে দূর্বল তাদের জন্য এই সফটওয়্যারটি বেশ কাজে আসবে । যারা বাংলা টু ইংলিশ ট্রান্সলেট করতে চাই তারা এই অ্যাপটি ইউজ করতে পারেন ।

আপনি যেকোনো বাংলা ওয়ার্ড ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করতে পারবেন । ফলে আপনার আর কোনো ডিকশনারি প্রয়োজন হবে না ।

আপনি চাইলে ইংরেজি ওয়ার্ডও বাংলায় ট্রান্সলেট করে জেনে নিতে পারবেন । কেউ বুঝতেও পারবে না আপনি ইংরেজিতে কিছুটা দূর্বল । আর এটার আপনি ট্রান্সলেট করতে করতে ইংরেজিও শিখে নিতে পারবেন ।

এক সময় আপনার আর ট্রান্সেল্ট করার দরকার হবে না । ট্রান্সলেটিং ওয়ার্ডগুলো আপনার মনে থেকে যাবে ফলে আপনি ইংরেজি ভাষা খুব সহজেই শিখতে পারবেন । শুধু বাংলা ইংরেজি নয়, আপনি বিশ্বের যেকোনো ভাষা ট্রান্সলেট করতে পারবেন “গুগল ট্রান্সলেট” সফটওয়্যার দিয়ে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

Download

৭। MX Player

মোবাইলের মাধ্যমে বিভিন্ন ভিডিও দেখার জন্য ভালো মানের একটি মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যারের প্রয়োজন । কারণ প্রতিটি মোবাইল ডিভাইসে ভিডিও দেখার জন্য যে সফটওয়্যার দেওয়া থাকে সেটার মধ্যে বিভিন্ন সেটিং পাওয়া যায় না যেটা প্লে-স্টোরে MX Player এর মধ্যে পাওয়া যায় । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

যেকোনো ধরনের এইচডি ফাইল থেকে শুরু করে ফুল এইচডি ভিডিও দেখার জন্য MX Player অ্যাপস ডাউনলোড করে নিতে পারেন । এই এপস দ্বারা ভিডিও দেখলে আপনার মোবাইলের চার্জ কম শেষ হবে ।

যেকোনো ভিডিও ব্যাকগ্রাউন্ডে চালাতে পারবেন । ভিডিও জুম করতে পারবেন ও মোবাইল লক করেও ভিডিও দেখার সুযোগ পাবেন ।

প্রতিটা মোবাইল ইউজারের জন্য প্লে-স্টোর থেকে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করে ইউজ করা দরকার । আপনি চাইলে “VLC for Android” অ্যাপটিও ইউজ করতে পারেন । কারণ এটাও MX Player এর মতো ভালো মানের ভিডিও দেখার সফটওয়্যার ।

আমি নিজেও VLC for Android অ্যাপটি ইউজ করি । সুতরাং এটাও একটি প্রয়োজনীয় apps ।

Download

৮। PicsArt Photo Editor

বর্তমানে স্মার্ট ফোন কেনার আগে ক্যামেরার দিকে মানুষ বেশি নজর দেয় । ক্যামেরা দিয়ে ভালো ফটো তুলা যাবে কি না সেটা মানুষ বেশি প্রাধান্য দেয় ।

প্রতিটি সেলফি বা ফটো তুলার পর সেটা কম-বেশি এডিট করার দরকার হয় । তাই বলা যায় এটাও প্রয়োজনীয় apps

এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনি যেকোনো ফটো খুব সুন্দর ভাবে এডিট করতে পারবেন । প্লে-স্টোরে এটার ফ্রী ও পেইড দুটি ভার্শন পাবেন । আপনি যেটা খুশি নিতে পারেন কোনো সমস্যা নাই ।

Download

৯ । WhatsApp Messenger

ভালো কিছু অ্যাপ

স্মার্ট ফোন দিয়ে বিশ্বের যেকোনো মানুষের সাথে অডিও-ভিডিও কথা বলার জন্য WhatsApp Messenger আপটি আপনার জন্য সবচেয়ে বেস্ট ।

সিম কার্ডের মাধ্যমে টাকা দিয়ে মানুষ এখন খুব কম কথা বলে । অনলাইনের মাধ্যমে মেগাবাইট ইউজ করে কথা বলে থাকে সবাই । যেকোনো মানুষের সাথে চ্যাটিং ও কথা বলার জন্য WhatsApp Messenger এপস অনেক ভালো ।

এটার মধ্যে ইমোজিগুলো খুব সুন্দর ভাবে দেওয়া হয়েছে । আপনি অডিও-ভিডিও কথা বলার সময় খুব অল্প স্পিডের নেট দিয়েও ভালো মতো পরিষ্কার সাউন্ডে কথা বলতে পারবেন । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

সারা বিশ্বে WhatsApp Messenger অ্যাপটি জনপ্রিয় হলেও বাংলাদেশিরা মূলত “IMO” অ্যাপস ইউজ করতে বেশি পছন্দ করে । আপনি চাইলে ইমু অ্যাপটিও ইউজ করতে পারেন কোনো সমস্যা নেই ।

কারণ ইমু আপটিও ভালো । তবে জনপ্রিয়তার দিক থেকে ও আধুনিক ভালো মানের অ্যাপ হিসেবে WhatsApp Messenger সবচেয়ে বেস্ট ।

এটার মধ্যে কোনো থার্ডপার্টি বিজ্ঞাপন দেখাবে না । কিন্তু ইমু অ্যাপটিতে প্রচুর পরিমানে থার্ড পার্টি বিজ্ঞাপনের শিকার হবেন । ফলে আপনি অনেক বিরক্ত হয়ে যেতে পারেন ।

Download

১০ । Internet Speed Meter Lite

অনেকেই হয়তো এই অ্যাপটি সম্পর্কে জানেন না । এটা হলো ইন্টারনেট স্পীড দেখার জন্য একটি ভালো মানের Internet Speed Meter Lite অ্যাপস । আমি নিজেও এই অ্যাপটি ব্যবহার করে থাকি ।

আপনি যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন তখন জেনে নিতে পারেন বর্তমান ইন্টারনেট স্পীড কেমন আছে । অনেক সময় ইন্টারনেট স্পীড কম থাকায় আপনি ব্রাউজিং করতে পারেন না বা দূর্বল ভাবে কাজ করে ।

ফলে আপনি ওয়েব সাইট বা সফটওয়্যারের উপর দোষ চাপিয়ে দেন । অথচ সেখানে আপনার মোবাইলে নেট পাওয়ায় এই সমস্যাটি হয়েছিলো ।

তাই ইন্টারনেট স্পীড সব সময় জেনে রাখার জন্য এই অ্যাপটি আপনার প্রয়োজনীয় । মূলত ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় আপনার মোবাইলে কত পরিমাণ ইন্টারনেটের গতি আপ ডাউন হচ্ছে সেটা শো করবে মোবাইলের নোটিফিকেশন বার এ ।

আপনি শুধুমাত্র অ্যাপটি ইন্সটল করে ওপেন করলেই অ্যাপের কাজ শুরু হয়ে যাবে । পরবর্তিতে আপনার আর কোনো কিছু করতে হবে না । বাকি সব অটোম্যাটিক কাজ করবে । সুতরাং এটাও আপনার জন্য একটি প্রয়োজনীয় apps হতে পারে ।

Download

১১। SuperVPN Free VPN Client – প্রয়োজনীয় কিছু apps

What is VPN? Virtual Private Network কেই মূলত ভিপিএন বলা হয় । এই ভিপিএন সম্পর্কে হয়তো অনেকেই জানে না । ভিপিএন আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজিং করার সময় অনেক কাজে দিবে । আপনি নিরাপদে ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করতে পারেন । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

ভিপিএন ব্যবহার করলে আপনি কোথা থেকে ইন্টারনেট ইউজ করছেন সেটা কেউ জানতে পারবে না । আপনি ঘরে বসে বিশ্বের যেকোনো দেশের কম্পিউটার নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে ইন্টারনেট জগতে যেকোনো কাজ সম্পন্ন করতে  পারবেন ।

এতে আপনার সিকিউরিটি থাকবে ও কেউ জানতেও পারবে না আপনি ঠিক কোথা থেকে ইন্টারনেট ইউজ করছেন ।

এছাড়া VPN আপনার ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর গতি বাড়িয়ে দিবে । সুতরাং নিরাপদে  ইন্টারনেট ব্যবহার করতে ভিপিএন সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে পারেন ।

Download

১২ । Automatic Call Recorder

গুরুত্বপূর্ণ apps

মোবাইলে আমরা অনেকেই নানা রকম কথা বলে থাকি । তবে কিছু কথা রেকর্ড করে রাখার অনেক প্রয়োজন হয় । তাই আপনি যদি স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে অটোম্যাটিক কল রেকর্ডিং করতে চান তাহলে এই এপস ডাউনলোড করে নিতে পারেন ।

গুগল প্লে-স্টোরে এই অ্যাপটি ফ্রিতে পাওয়া যাবে । আপনি এটা ডাউনলোড করে ইন্সটল করলেই যেকোনো ফোন কল রেকর্ড করতে পারবেন ও পরবর্তি যেকোনো সময় শুনতে পারবেন । আর রেকর্ডিং গুলো আপনার মোবাইলের মেমোরি কার্ডে একটি ফাইল তৈরি হয়ে সেভ হয়ে থাকবে । সুতরাং এটা আপনার জন্য একটি প্রয়োজনীয় apps হতে পারে ।

Download

১৩ । YouTube

যেকোনো স্মার্ট ফোনের মধ্যে ইউটিউব অ্যাপটি সেট করা থাকে । অনলাইনে ভিডিও দেখার জন্য এটা সবচেয়ে বড় ভিডিও প্লাটফর্ম ।

আপনি মজার মজার নানা রকম ভিডিও পাবেন ইউটিউবের মধ্যে । এটা গুগলের একটি পণ্য যার ফলে যেকোনো ভিডিও দেখার জন্য লোডিং টাইম কম নেয় ও সুপার স্পিডে ভিডিও দেখা যায় ।

ইউটিউব থেকে কোনো ভিডিও মেমোরি কার্ডে ডাউনলোড করতে পারবেন না । যদি চান তাহলে ডাউনলোডিং ম্যানাজারের দরকার হবে ।

আপনার মোবাইলে যদি ইউটিউব অ্যাপস না থাকে বা যদি থাকে আপনি প্লে-স্টোর থেকে নামিয়ে নিতে পারবেন ও নতুন আপডেট ভার্শন ইউজ করতে পারবেন । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

Download

১৪। VidMate – প্রয়োজনীয় কিছু apps

ভিডমেট এপস এর নাম হয়তো অনেকেই শুনেছেন । মোবাইলের মাধ্যমে ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য ভিডমেট অ্যাপস অন্যতম ।

প্রায় অধিকাংশ এন্ড্রয়েড ইউজার ভিডমেট অ্যাপস ব্যবহার করে থাকে ইউটিউব থেকে ভিডিও ডাউনলোড করার জন্য । আপনিও যদি ইউটিউব ভিডিও ডাউনলোড করতে চান তাহলে ভিডমেট এপস মোবাইলে ইন্সটল করে নিন ।

শুধু ইউটিউব ভিডিও নয়, আপনি চাইলে বিভিন্ন ওয়েবসাইটের ভিডিও ও অডিও গান ডাউনলোড করতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে ।

ভিডমেট এপস ডাউনলোড করার জন্য এর অফিসিয়াল সাইট বা বিভিন্ন ওয়েব প্লাটফর্মের সহায়তা নিতে পারেন । কারণ এটা গুগল প্লে-স্টোরে পাবেন না । ভিডমেট অ্যাপের মাধ্যমে কোনো কিছু ডাউনলোড করার আরেকটি সুবিধা হলো ফুল স্পীডে ডাউনলোড করতে পারবেন ।

সুতরাং কোনো কিছু ডাউনলোড করার জন্য আপনার একটি ডাউনলোড ম্যানাজার দরকার হবে তাই এই অ্যাপটিও আপনার অনেক প্রয়োজনীয় apps ।

Download

১৫ । AppLock – দরকারি apps

মোবাইল হলো আমাদের একটি পার্সোনাল জিনিস । মোবাইলে আমাদের বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার বা ছবি ও অডিও-ভিডিও ফাইল থাকতে পারে । এই সবকিছু লক করে রাখার জন্য মূলত AppLock এপস ইউজ করা হয় ।

আপনি যদি চান আপনার মোবাইল ধরে কেউ আপনার ব্যাক্তিগত তথ্যগুলো না দেখুক তাহলে এই অ্যাপটি ফ্রিতে প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন । আপনি বিভিন্ন ভাবে লক করে রাখতে পারবেন যেমন – ফিঙ্গারপ্রিন, প্যাটার্ন, পাসওয়ার্ড ইত্যাদি । আপনি ফাইলগুলো লক করে রাখলে মোবাইল থেকে অটোম্যাটিক হাইড হয়ে যাবে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

AppLock অ্যাপের মধ্যে প্রবেশ করে আবার সেই ফাইলগুলো আনলক করে নিতে পারবেন । খুবই মজার একটি অ্যাপস আপনার পছন্দ হলে ডাউনলোড করতে পারেন ।

Download

১৬। Google Drive – দরকারি apps

দরকারি apps

গুগল ড্রাইভ অ্যাপটি সকল ধরনের এন্ড্রয়েড ফোনে পাওয়া যায় না । তবে বর্তমান ভার্শনের বেশিরভাগ মোবাইলে Google Drive এপস সেট করা থাকে । এটার প্রধান কাজ হলো ডাটা সংরক্ষণ করা ।

অর্থাৎ আপনি যেকোনো ধরনের ফাইল এই ড্রাইভে আপলোড করে রাখতে পারবেন । এরজন্য আপনার একটি জিমেইল লাগবে যেটার মাধ্যমে আপনি গুগল ড্রাইভ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন ।

সাধারণত একটি জিমেইল একাউন্ট তৈরী করলেই গুগল ড্রাইভ অটোম্যাটিক তৈরি হয়ে যায় । ফ্রিতে গুগল ড্রাইভ ইউজ করার জন্য আপনি ১৫ জিবি এর মতো স্টোরেজ পাবেন । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

আপনি যেকোনো সময় বিশ্বের যেকোনো স্থান হতে Google Drive থেকে আপনার কাঙ্ক্ষিত ফাইল সংগ্রহ করতে পারবেন ও চাইলে ডিলিটও করতে পারবেন ।

গুগল মূলত এটা একটি সেবা দিয়ে যাচ্ছে যেটা লক্ষ লক্ষ মানুষের উপকারে আসছে । আপনিও চাইলে গুগল ড্রাইভ অ্যাপস ডাউনলোড করে এর সেবা নিতে পারবেন । তাই বলা যায় এটাও আপনার জন্য একটি প্রয়োজনীয় apps ।

Download

১৭। Home Workout

এই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে হেলথ টিপস নিয়ে । আপনার দৈনিক কি কি করলে আপনার স্বাস্থ্য ঠিক থাকবে সেটা জানার জন্য ও প্রক্রিয়াগুলো দেখার জন্য এই অ্যাপস ডাউনলোড করতে পারেন ।

আপনার শরীরের ওজন বেশি বা কম থাকলে সেটা কিভাবে স্বাভাবিক করা যায় সেটার প্রক্রিয়াও “Home Workout” অ্যাপের মধ্যে দেয়া রয়েছে ।

আপনি প্রতিদিন এই অ্যাপের নিয়ম অনুযায়ী কাজ করলে সহজেই শরীর স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে পারবেন । সুতরাং এটা আপনার জন্য খুব প্রয়োজনীয় একটি apps ।

Download

উপসংহার

স্মার্ট ফোন ইউজ করার জন্য আমাদের যেসব অ্যাপগুলো খুব দরকারি সেগুলো নিয়ে আজকে আমি আলোচনা করেছি । এর মধ্যে কিছু এপস দরকার নাও হতে পারে, তবে অ্যাপগুলো আপনার অনেক কাজে আসবে ।

একটি এন্ড্রয়েড ফোন স্মার্টলি ইউজ করতে গেলে সাধারণত এইসব অ্যাপের প্রয়োজন হতে পারে । মূলত যারা প্রয়োজনীয় কিছু apps খুজে বেড়াচ্ছেন তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি তৈরি করা হয়েছে । ( প্রয়োজনীয় কিছু apps )

আশা করি আপনাদের কাছে আর্টিকেলটি অনেক ভালো লেগেছে । নতুন কোনো টপিক নিয়ে আর্টিকেল দরকার হলে আমাদের জানাতে পারেন নিচে কমেন্ট করে ।

Leave a Comment