বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম 100% সহজ পদ্ধতি

অনলাইনে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম : বর্তমানে বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য কোনো দোকানে যেতে হয় না । আপনি ঘরে বসে নিজে নিজে bkash আইডি খুলতে পারবেন সবচেয়ে সহজ উপায় । এছাড়া যারা বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খুলতে চান তাদের জন্য দোকানের ট্রেড লাইসেন্সের দরকার হবে । আর পার্সোনাল বিকাশ একাউন্ট খুলার জন্য আপনার ভোটার আইডি কার্ড ও নিজের ছবি থাকলেই চলবে । বিকাশ এজেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যবসায়ী ছাড়া অন্য কেউ খুলতে পারে না । কারন বিকাশ এজেন্ট একাউন্টের মাধ্যমে সব থেকে লেনদেন করা যায় ও টাকা কম কাটে ।

আজকে এখানে আমি বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম দেখাবো । আপনারা যারা বিকাশ অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তারা সবাই আর্টিকেলটি মনযোগ দিয়ে পড়ুন । কারন সম্পূর্ণ ভাবে বুঝতে না পারলে আপনার বিকাশ একাউন্ট খোলার সময় সমস্যা হতে পারে । আর আপনি কখনোই চাইবেন না বিকাশ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট খোলার সময় কোনো ভুলত্রুটি থাকুক ।

বিকাশ হলো টাকা পয়সা লেনদেনের অন্যতম অনলাইন মাধ্যম । আপনি যেকোনো সময় বিকাশের মাধ্যমে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে অর্থ লেনদেন করতে পারবেন । এমনি চাইলে মাস্টারকার্ড থেকে বিকাশ একাউন্টে টাকা নিয়ে আসতে পারবেন ।

এছাড়া বর্তমানে আরো একটি সুবিধা দেওয়া হয়েছে সেটা হলো বিকাশ একাউন্টের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা ।

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

অনেক বছর ধরেই বিকাশ চালু হয়েছে । এটার মাধ্যমে খুব সহজে অর্থ লেনদেন করা যাবে । আপনার মোবাইল সিম কার্ডে যদি কোনো বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলা না থাকে তবুও কেউ যদি আপনার সিম কার্ডে সেন্ড মানি করে বিকাশ করে তাহলে আপনি সেই টাকা উত্তোলন করতে পারবেন বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার মাধ্যমে ।

বিকাশ খোলার নিয়ম

এছাড়া অনেক সময় বিকাশ থেকে অফার দেয় বিকাশ অ্যাকাউন্ট খুললে ৫০ টাকা বোনাস । শুধু তাই নয়, আপনি যদি প্রথমবারের মতো বিকাশ অ্যাপস ডাউনলোড করে সেটায় লগইন করেন তাহলে ২৫ টাকা বোনাস, প্রথমবার অ্যাপ থেকে মোবাইলে ২৫ টাকা রিচার্জ করলে ৫০ টাকা নিশ্চিত ক্যাশব্যাক ও ৫০০ টাকা পর্যন্ত সেন্ড মানি করলে কোনো চার্জ নেওয়া হবে না ।

আপনি আরো একটি সুবিধা পাবেন সেটা হলো অ্যাপের মাধ্যমে ক্যাশ আউট করলে হাজারে ১৭.৫ টাকা চার্জ করা হবে অন্যথায় ২০ টাকা করে চার্জ নেওয়া হয় ।

এগুলো হলো বর্তমান সময় বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার বিশেষ সুবিধা । আমি আজকে আপনাকে যে পদ্ধতিতে বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম দেখাবো তা হলো বিকাশ অ্যাপস । তাহলে চলুন আর দেড়ি না করে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম জেনে নেই –

বিকাশ একাউন্ট খুলতে কি কি প্রয়োজন

  1. রেজিস্ট্রেশন করা সিম কার্ড
  2. ন্যাশনাল আইডি কার্ড
  3. নিজের ছবি

বর্তমানে বিকাশ নতুন একটি আপডেট নিয়ে আসছে যা আমাদের সকলের জন্য অনেক সুবিধা হয়েছে । আপনি বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট খুলতে চাইলে শুধুমাত্র NID Card এর দুই পিঠের ফটো লাগবে ও নিজের ছবি তুলতে হবে । এরপর আপনার একটি সিম কার্ড লাগবে যেই সিম কার্ডের মাধ্যমে আপনি লেনদেন করবেন ।

সবশেষে আপনার মোবাইলে বিকাশ এপস ডাউনলোড করতে হবে । এই অ্যাপস আপনি প্লে-স্টোর থেকেও ডাউনলোড করতে পারেন অথবা সরাসরি বিকাশ ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারেন ।

মনে রাখবেন বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে বিকাশ একাউন্ট তৈরি করার জন্য আপনার মোবাইলে অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশন ও মেগাবাইট থাকতে হবে ।

আরো পড়ুন-

বিকাশ অ্যাপ দিয়ে একাউন্ট খোলার নিয়ম

স্টেপ ১ : আপনার মোবাইলে বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করার পর অ্যাপটি ওপেন করতে হবে তখন কিছু অপশন আসতে পারে ও সেগুলো Allow চাইলে Allow করে দিবেন । কারন এটা আপনার নিরপত্তার জন্য চাওয়া হয়ে থাকে । যাইহোক, এখন আপনি “লগ ইন / রেজিস্ট্রেশন” অপশন দেখতে পাবেন এবং সেখানে ক্লিক করুন ।

অনলাইনে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ২ : এখন নতুন একটি এন্টার পেজ চলে আসবে । সেখানে মোবাইল নাম্বার দেওয়ার কথা বলে হয়েছে । সুতরাং যে নাম্বার দিয়ে আপনি বিকাশ একাউন্ট খুলতে চান সেটা দিতে হবে ।

বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

সঠিকভাবে মোবাইল নাম্বার দেওয়ার পর নিচে ডান দিকে একটি “Arrow” বাটন দেখতে পাবেন এবং সেটায় ক্লিক করতে হবে ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৩ : “Arrow” বাটনে ক্লিক করার পর একটু লোডিং হবে এবং বাংলাদেশের সিম কার্ড কোম্পানিগুলোর নাম দেখতে পারবনে । এখন আপনি যে নাম্বারটি দিয়ে বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য দিয়েছে সেটা কোন অপারেটর তা নির্বাচন করুন এবং ক্লিক করুন ।

3

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৪ : আপনার পছন্দের অপারেটর সিলেক্ট করার পর একটু লোডিং হবে এবং আপনার নাম্বারে ৬ ডিজিটের একটি ভেরিফিকেশন কোড যাবে যেটা আপনাকে “ভেরিফিকেশন কোড” এর নিচে ফাকা স্থানে বসিয়ে দিতে হবে ।

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম 4

মনে রাখবেন আপনার ভেরিফিকেশন কোড কখনোই অন্য কারো কাছে প্রদান করা যাবে না । এরপর আপনি সঠিক ভেরিফিকেশন কোডটি বসানোর পর নিচে ডান দিকের “Arrow” বাটনটিতে ক্লিক করতে হবে ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৫ : এখন আপনার ভেরিফিকেশন কোড ভেরিফাই করার জন্য কিছুক্ষণ সময় নিবে । আপনার ভেরিফিকেশন কোড যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে একটি নতুন পেজ ওপেন হবে সেখানে বিকাশ থেকে কিছু “শর্তাবলি” দেওয়া থাকবে ।

5

আপনি চাইলে সম্পূর্ণ শর্তাবলি পড়ে নিতে পারেন । কারন আপনি যদি একজন নতুন বিকাশ ইউজার হয়ে থাকেন তাহলে শর্তাবলিটি পড়া আপনার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ । এরপর নিচের ডান দিকে “Arrow” বাটনে ক্লিক করুন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৬ : এখন আপনার সামনে একটি নতুন এন্টার পেজ ওপেন হবে যেখানে বলা থাকবে “নতুন বিকাশ একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করুন ৩টি সহজ ধাপে” এবং নিচে ৩টি ধাপ উল্লেখ করা থাকবে । যেখানে আপনার NID কার্ড, প্রয়োজনীয় তথ্য ও নিজের চেহারার ছবি চাওয়া হবে ।

6

এরপর নিচের ডান দিকে “Arrow” বাটনটি সিলেক্ট করে সামনে এগিয়ে জান । কোনো কিছু “Allow” চাইলে “Allow” করে দিতে হবে ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৭ : এখন আপনার কাছে ভোটার আইডি কার্ডের ছবি চাওয়া হবে এবং ক্যামেরা অন হয়ে যাবে । ডিস্প্লেতে আপনি একটি ফ্রেম দেখতে পারবেন যেটার চার দিকে বর্ডার দেওয়া থাকবে । আর সেই বর্ডারের ভেতরে ভোটার আইডি কার্ডটি রেখে নিচে একটি গোল বাটন পাবেন সেটায় প্রেস করে ছবি তুলতে হবে ।

bkash-খোলার-নিয়ম-7

আপনি প্রথমে ভোটার আইডি কার্ডের সামনের দিকটার ছবি তুলবেন । ছবি তোলার সময় খেয়াল রাখবেন যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ আলো থাকে এবং লেখাগুলো স্পষ্ট দেখা যায়।

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম 7-1

ভোটার আইডি কার্ডের সামনের দিকের ছবি ঠিকঠাক ভাবে তোলা হলে “সাবমিট করুন” বাটনে ক্লিক করবেন । আর যদি ছবি ঠিক মতো তোলা না হয় তাহলে “আবার তুলুন” বাটনে ক্লিক করুন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ৮ : এবার আপনার ভোটার আইডি কার্ডের পিছনের ছবি তোলার জন্য আবার ক্যামেরা অন হয়ে যাবে । আগের মতো করে ছবি তুলে “সাবমিট করুন’ বাটনে ক্লিক করবেন ।

8

এখন আপনার সামনে আপনার ভোটার আইডি কার্ডের যাবতীয় তথ্য উপস্থাপন করা হবে । সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করুন ।

8-1

স্টেপ ৯ : এখন আপনার সামনে নতুন একটি ইউন্ডো ওপেন হবে যেখানে বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য আপনার কিছু তথ্য প্রদান করতে হবে ।

9

আপনি সঠিক ভাবে তথ্যগুলো নির্বাচন করে নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করে সামনে এগুতে হবে ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ১০ : এবার আপনার কাছে নিজের ছবি তোলার জন্য নতুন একটি ইউন্ডো ওপেন হবে । ছবি তোলার আগে আপনি খেয়াল রাখবেন যাতে চার দিকে যথেষ্ট আলো থাকে এবং আপনার চেহারা জেন স্পষ্ট দেখা যায় । ছবি তোলার জন্য নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

10

তারপর আপনার সামনে গোলাকার ভাবে ক্যামেরা অন হয়ে যাবে যেটার মধ্যে আপনি নিজের চেহারা সেট করে সেলফি তুলতে হবে । আপনি যখন গোলাকার জায়গাটিতে নিজের চেহারা নিয়ে আসবেন তখন গোলাকারের একদিক থেকে একটি বর্ডার চলে আসবে এবং সেটা গোলাকারের চার দিক দিয়ে ঘুরে কমপ্লিট করবে ।

10-1

ছবি তোলার সময় “Please Blink” নামে একটা লেখা আসতে পারে সেটা আসলে আপনি চোখের পলক ফেলবেন কয়েকবার । এটা আসার কারন হলো আপনি জীবন্ত নাকি মৃত সেটা নিশ্চিত করা হয় । আর যদি কোনো লেখা নাও আসে তাহলেও আপনাকে কয়েকবার চোখের পলক ফেলতে হবে । এটা ছাড়া আপনার ছবি সম্পন্ন হবে না ।

তো সেলফি তোলার পর আপনার সামনে একটি নতুন ইউন্ডো আসবে যেটার মধ্যে নিশ্চিত হওয়ার জন্য আপনার কাছে অনুমোতি চাওয়া হবে । এবং সেখানে বলে দেওয়া হবে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আপনার বিকাশ একাউন্ট সম্পূর্ণ ভাবে অ্যাক্টিভ হয়ে যাবে । মূলত এই সময়টা নেওয়া হয়ে থাকে আপনার তথ্যগুলো রিভিউ করার জন্য ।

10-2

সাধারণত বিকাশ একাউন্ট খোলার কিছুক্ষণের মধ্যে একাউন্ট এক্টিভ হয়ে যায় । যাইহোক, আপনি নিশ্চিত হওয়ার জন্য নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করুন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ১১ : এখন আপনার সামনে একটি নতুন ইউন্ডো চলে আসবে । সেখানে আপনাকে কনফার্মেশন এসএমএস (SMS) এর জন্য অপেক্ষা করতে বলা হবে । আপনি এসএসএস পাওয়ার পর ইউন্ডোটি কেটে দেওয়ার জন্য ক্রস বাটনে ক্লিক করতে পারেন অথবা “লগ ইন/রেজিস্ট্রেশন” বাটনে ক্লিক করুন ।

নিজে নিজে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনার মোবাইলে এসএমএস এর মধ্যে জানানো হবে বিকাশ পিনকোড সেট করার জন্য ৭২ ঘন্টা সময় পাবেন । এরসাথে আরো একটি এসএমএস পেতে পারেন সেটা হলো ৫০ টাকা বোনাস । যদি অফার থাকে তাহলে এই বোনাসটি পাবেন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ১২ : আপনার বিকাশ একাউন্ট এখন রেজিস্ট্রেশন করা হয়েগেছে । আপনি এখন শুধুমাত্র পিন কোড সেট করবেন এবং সেটা করলে একাউন্ট সম্পন্ন হবে ।

বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম

পিনকোড সেট করার জন্য আপনি ওপরের “লগইন/রেজিস্ট্রেশন” বাটনে ক্লিক করুন ।

স্টেপ ১৩ : এবার আপনার সামনে আগের মতো করে মোবাইল নাম্বার চাওয়া হবে । আপনার বিকাশ মোবাইল নাম্বার এখানে টাইপ করে “Arrow” বাটনে ক্লিক করুন এবং আপনার সিম কোম্পানি বা অপারেটর সিলেক্ট করতে হবে ।

এরপর আগের মতো করে একটি ভেরিফিকেশন কোড চলে যাবে আপনার সিম কার্ডে । আর সেই কোড এখানে টাইপ করে আবার “Arrow” বাটনে ক্লিক করুন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ১৪ : এখন আপনার কাছে নতুন বিকাশ পিন সেটা করার জন্য ইউন্ডো চলে আসবে । পিন সেট করার আগে অবশ্যই মনে রাখবেন কখনোই অন্যের কাছে পিনকোড হস্তক্ষেপ করা যাবে না । পিনকোড হলো একটি গুপনীয় বিষয় ।

বিকাশ আইডি খোলার নিয়ম

তো আপনি ৫ ডিজিটের পিনকোড সেট করতে পারবেন । আপনাকে একই পিনকোড দুইবার বসাতে হবে এবং নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

স্টেপ ১৫ : তো এখন আপনার সামনে একটি নতুন ইউন্ডো চলে আসবে বিকাশ একাউন্ট লগইন করার জন্য । আপনার বিকাশ ফোন নাম্বারটি শো করবে এবং তার নিচে পিনকোড চাওয়া হবে যেটা আপনি একটু আগে সেট করেছেন । তো আপনি পিনকোড বসিয়ে “Arrow” বাটনে ক্লিক করবেন ।

বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার সিম কার্ডে একটি এসএমএস যেতে পারে । [ অভিনন্দন! আপনার বিকাশ একাউন্ট তৈরি হয়েগেছে ]

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

স্টেপ ১৬ : এবার আপনার সামনে নতুন একটি পেজ ওপেন হবে যেখানে আপনার সম্পূর্ণ নাম দিতে বলা হবে । আপনি চাইলে নাম সেট করতে পারেন আবার নাও করতে পারেন । এটার কোনো সমস্যা হবে না ।

আপনি চাইলে নাম সেট করে নিচে “Arrow” বাটনে ক্লিক করতে পারেন । স্কিপ করে করে দিতে পারেন । এখন আপনার কাছে প্রোফাইল পিকচার চাইবে যেটা আপনি যুক্ত করতে পারেন আবার মনে চাইলে নাও করতে পারেন, এগুলো নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না । এবার আপনি যেকোনো সময় অ্যাপের মাধ্যমে বিকাশে টাকা লেনদেন করতে পারবেন ।

বিকাশ অ্যাপ ছাড়া অফলাইনে মোবাইলের মাধ্যমে টাকা পাঠানোর জন্য বা ব্যালেন্স চেক করার জন্য *247# এই নাম্বারে ডায়াল করুন ।

[ বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ]

উপসংহার

বন্ধুরা, নিজে নিজে বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম জানার জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি তৈরি করা হয়েছে । আশা করি আপনাদের কাছে এটা অনেক ভালো লেগেছে ও উপকারে আসবে । আপনি যদি মনোযোগ সহকারে আর্টিকেলটি পড়েন তাহলে অবশ্যই সহজ ভাবে বোঝতে পারবেন ।

আপনাদের সামনে সঠিক তথ্যগুলো তুলে ধরাই হলো আপনার প্রধান উদ্দেশ্য । আপনারা যদি আরো কোনো অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম জানতে চান বা প্রযুক্তিগত আর্টিকেল প্রয়োজন হলে নিচে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন । ধন্যবাদ!

Leave a Comment