12টি ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার ডাউনলোড সম্পূর্ণ ফ্রী

অনলাইনে যারা অডিও ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার ডাউনলোড করার জন্য খুজাখুজি করছেন তাদের  জন্য এখানে জনপ্রিয় কতগুলো অ্যাপস দেওয়া আছে। বিশেষ করে ইউটিউবারদের কাছে এই এপস গুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ। মোবাইলে স্ক্রিন রেকর্ডিং করাসহ ভালো অডিও রেকর্ড করা যাবে। স্মার্ট ফোনে ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস গুলো ডাউনলোড করা যাবে গুগল প্লে-স্টোর থেকে এবং সম্পূর্ণ ফ্রি ব্যবহার করা যাবে।

যারা ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে চায় তাঁরা প্রথমেই একটি ভালো মানের স্ক্রিন রেকর্ডার খুঁজে থাকে। তাই তাদের কথা ভেবে আমি এই আর্টিকেলটি তৈরি করছি।

ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস দিয়ে শুধু ইউটিউবের জন্যই ভিডিও বানানো হয় না বরং বিশেষ কোনো কাজের জন্যও এইসব সফটওয়্যার ব্যবহার হয়ে থাকে।

মনে রাখবেন স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করার জন্য এই অ্যাপগুলো শুধু মাত্র Android ডিভাইসেই ব্যবহার করা যাবে। গুগলে আপনি অনেক ধরণের স্ক্রিন রেকর্ডার অ্যাপস পাবেন কিন্তু সকল ধরণের এপস ভালো মানের হয় না। তাই এখানে কিছু বাছাই করা ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার তালিকাভুক্ত করা হয়েছে যেগুলো আপনার অনেক কাজে আসবে।

ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

আজকের এই আর্টিকেলটি সেরা ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার খুঁজতে সহায়তা করবে। কোনো ভিডিও রেকর্ড করতে হলে অবশ্যই সাউন্ড ও এচইডি কোয়ালিটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

হ্যাঁ! আপনি যদি আজকের এই অ্যাপগুলো ডাউনলোড করেন তাহলে ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। আর সেই ভিডিও কোনো জায়গায় শেয়ার করলে ভিডিওর উপর কোনো প্রভাব পরবে না।

আশা করি আপনার কাছে এই সফটওয়্যারগুলো অনেক ভালো লাগবে। অনেকেই কয়েকটি অ্যাপস সম্পর্কে জেনে তারপর ডাউনলোড করতে চায়। তাই তাদের জন্য এই আর্টিকেলটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে।

১। AZ Screen Recorder – ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস

AZ Screen Recorder ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

শুরুতেই তালিকার প্রথম স্থানে রেখেছি AZ Screen Recorder অ্যাপস। গুগল প্লে-স্টোরে এই সফটওয়্যার পাওয়া যাবে। আর এটা ইন্সটল করে ব্যবহার করতে পারবেন সম্পূর্ণ ফ্রি। আর আপনি হয়তো জানেন ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস ফ্রি হলে একটু ঝামেলা থাকে সেটা বিজ্ঞাপন ও ওয়াটারমার্ক। কিন্তু মজার বিষয় হলো এই অ্যাপের মধ্যে আপনার স্ক্রিন রেকর্ডিং ভিডিওগুলোর মধ্যে কোনো ওয়াটারমার্ক থাকবে না।

এছাড়া আরো কিছু সমস্যা থাকে সেটা হলো রুট ডিভাইসের দরকার হয়। আর এটাও আপনার লাগবে না যদি এই অ্যাপটি ডাউনলোড করে থাকেন।

এই ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যারটি তালিকার শীর্ষ স্থানে রাখার অন্যতম কারণ হলো এটা ব্যবহার করা অনেক সহজ ও ফুল এইচডি ভিডিও রেকর্ড করা যায়। এই অ্যাপটি টিউটোরিয়াল করতে অনেক হেল্প করবে। এটার কিছু অপশন রয়েছে যেটার মাধ্যমে আপনি ভিডিও রেজোলিউশন নিজের মতো করে পরিবর্তন করতে পারবেন।

ভিডিও রেকর্ডিং করার ক্ষেত্রে কোনো লিমিট থাকবে না। অর্থাৎ আপনি আনলিমিটেড ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

যারা অ্যাপটি দিয়ে স্ক্রিন রেকর্ডিং করবেন তাঁরা আরো কিছু সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যেমন- ভিডিও রেকর্ডিং করার সময় স্ক্রিনে মনের মতো যেকোনো জায়গায় ড্রয়িং করতে পারবেন।

এছাড়া রয়েছে ট্রিম অপশন যেটার মাধ্যমে আপনার রেকর্ড করা ভিডিও থেকে কিছু অপ্রয়জনীয় জিনিস সরিয়ে ফেলতে পারবেন। আশা করি অ্যাপটি আপনার কাছে অনেক দারুন লাগবে।

 

Download

২। DU Recorder – Screen Recorder – ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

DU Recorder

ডিউ রেকর্ডার সফটওয়্যার সম্পর্কে আপনি হয়তো অনেক শুনেছে। এবার আপনি এটার যাবতীয় গুনাগুণ গুলো জেনে নিতে পারবেন।

গুগল প্লে-স্টোরে ভিডিও রেকর্ডিং করার অ্যাপের মধ্যে এটা শীর্ষ স্থান দখল করে নিয়েছে। কিন্তু এই তালিকার মধ্যে কিছু গুণের কারনে আমরা দ্বিতীয় স্থানে রেখেছি। এই অ্যাপটি পারফর্মেন্স অসাধারণ।

আপনি চাইলে এটা গুগল প্লে-স্টোর থেকে বিনামূল্যে সংগ্রহ করতে পারেন। যখন আপনি ভিডিও রেকর্ড করতে যাবেন যদি রেকর্ডিং একটু থামিয়ে রাখতে চান তাহলে এর রিজিউম অপশন আপনার অনেক কাজে দিবে।

স্ক্রিন রেকর্ড চলাকালীন সময় আপনি সামনের ক্যামেরাও ইউজ করতে পারবেন। যেটা দিয়ে আপনার চেহারা দেখা দেখা যাবে ভিডিওর মধ্যে। এই অ্যাপটির ভিডিও সাউন্ড কোয়ালিটি অনেক ভালো পাবেন। শুধু তাই নয়, এর মাধ্যমে আপনি গিফ রেকর্ডও করতে পারবেন।

ভিডিও রেকর্ডিং করার এই সফটওয়্যারটি দিয়ে শুধু ভিডিও করা যায় বিষয়টা ঠিক তা নয়, আপনার রেকর্ড করা ভিডিওটি কিছুটা এডিট করার সুযোগ রয়েছে।

ভিডিও ক্রপ, সাউন্ড যুক্ত করা, রোটেট করা ইত্যাদি। এর আরো একটি সুবিধা হলো ভিডিও রেকর্ড করার সময় আপনি স্ক্রিনশট নিতে পারবেন ও ইমেজটি এডিট করতে পারবেন। এছাড়া রেকর্ডিংয়ের ক্ষেত্রে এর কোনো সময়সীমা নেই।

Download

৩। Screen Recorder VideoShow with audio & Video Editor

Screen Recorder V Recorder

ভিডিও রেকর্ডার অ্যাপগুলোর মধ্যে এটা অন্যতম। এই অ্যাপের নাম দেখেই আপনি হয়তো বুঝতে পারছেন এটার মাধ্যমে মোবাইলের স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করা যাবে ও অডিও-ভিডিও এডিট করা যাবে।

সত্যি অ্যাপটির এটি একটি বিশেষগুণ বটে। প্লে-স্টোর থেকে এটা কোনো টাকা খরচ না করেই ডাউনলোড করতে পারবেন।

এই অ্যাপের কিছু মিউজিক পাওয়া যাবে যেগুলো আপনার রেকর্ড করা ভিডিওর মধ্যে যুক্ত করতে পারবেন। আর এর দ্বারা বুঝা যায় যে সফটওয়্যারটির মাধ্যমে ভিডিও এডিটও করা যাবে। আর এর রেকর্ডিং সময়সীমা নেই যেটা নিয়ে আপনার কোনো চিন্তা করতে হবে না।

আপনি এই অ্যাপের সকল ধরণের ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। আপনি চাইলে গেমসও রেকর্ডিং করতে পারবেন ও এর ফিল্টারগুলো দিয়ে স্ক্রিনশট ও মিউজিকযুক্ত করতে পারবেন। আসলে সব মিলিয়ে এটা আপনার জন্য একটি দুর্দান্ত ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার হতে চলেছে।

এই সফটওয়্যারের কিছু অসাধারণ বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেগুলো আপনার রেকর্ডিং করার সময় অনেক কাজে আসবে।

আপনি যদি কোনো লাইভ ভিডিও করতে চান তাহলে সেটাও এই অ্যাপের মাধ্যমে করতে পারবেন।

ভিডিও কাট করা থেকে শুরু করে একত্রিত করা যাবে। আর সব থেকে মজার ব্যাপার হলো ভিডিও রেকর্ডের মধ্যে অ্যাপ থেকে কোনো ওয়াটারমার্ক থাকবে না। সুতরাং চাইলে এই সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করতে পারেন।

Download

৪। Screen Recorder – ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

Screen Recorder

ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যারের তালিকায় এটি আমরা চার নাম্বার স্থানে যুক্ত করেছি। এই অ্যাপটি মোবাইলের স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করার জন্য একটি দুর্দান্ত অ্যাপস। এই সফটওয়্যার দিয়ে আপনি গেমস রেকর্ড করাসহ, টিউটোরিয়াল, লাইভ ভিডিও কল ইত্যাদি নানা রকম ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে।

অ্যাপটি ব্যবহার করা অনেক সহজ। আপনি যখন এর মাধ্যমে মোবাইলের স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করবেন তখন চাইলে আপনার চেহারা দেখাতে পারবেন ভিডিওর কোনো এক সাইটে।

বিশেষ করে যারা ইউটিউব টিউটোরিয়াল তৈরি করে তাদের জন্য এই পদ্ধতিটি অনেক কার্যকরি। আর হ্যাঁ! এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করার জন্য কোনো ইন্টারনেট কানেকশনের দরকার হবে না।

আপনার ভিডিও রেকর্ড করা হয়েগেলে বিভিন্ন জায়গায় শেয়ার করতে পারবেন এবং মোবাইলের মেমোর্ডি কার্ডে সংগ্রহ করে রাখতে পারবেন।

এছাড়া আপনি চাইলে ভিডিও রেকর্ড করার পর কিছু এডিটও করতে পারবেন। এই অ্যাপটি দ্বারা আপনি হাই-কোয়ালিটি স্ক্রিন রেকর্ড করতে পারবেন।

ভিডিও রেকর্ড করার সময় কোনো স্থানে যদি ড্রয়িং বা চিহ্নিত করার দরকার হয় তাহলে অঙ্কন করার বিশেষ একটি অপশন পাবেন।

আপনার ভিডিওতে যদি অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো পার্ট চলে আসে তাহলে সেটা রিমুভ করে ভিডিওটি সুন্দর করে তুলতে পারবেন।

শুধু তাই নয়, আপনি আরো ভিডিও রেকর্ড করার পাশাপাশি অডিও রেকর্ডও করতে পারবেন। সুতরাং বলাই যায় এটা আপনার জন্য একটি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ সফটওয়্যার হতে চলেছে।

Download

৫। iRecorder – Video Recorder

iRecorder Video Recorder

ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে এটি বেশ ভালো একটি অ্যাপস ও মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ড মোডে এটা দিয়ে ভিডিও রেকর্ডিং করা সম্ভব।

অ্যাপটি দিয়ে আপনি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। এই সফটওয়্যার দিয়ে আপনি ফ্রন্ট ও ব্যাক ক্যামেরা দুটই ব্যবহার করে রেকর্ড করতে পারবেন।

ভিডিও করার সময় কোনো কিছুর ছবি তোলার জন্য ক্যাপচা করতে পারবেন। আসলেই অনেক ভালো মানের, আর এটা ডাউনলোড করে ইন্সটল করলে বুঝতে পারবেন কেন আমি আইরেকর্ডার অ্যাপস এই তালিকায় যুক্ত করেছি।

কোনো সন্দেহ ছাড়াই এটা সেরাদের মধ্যে অন্যতম সেরা একটি এপস হিসাবে ধরা যায়। মজার ব্যাপার হলো আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস লক অবস্থায় থাকলেই ব্যাকগ্রাউন্ড মোডে ভিডিও করতে পারবেন।

অ্যাপলিকেশনটির মধ্যে বিভিন্ন রকমের ভাষা সাপোর্ট করে ও ভিডিও রেকর্ডিং করার পর ট্রিম করতে পারবেন।

ভিডিও রেকর্ডিং করার সময় আপনার মোবাইলের মেমোরি কার্ডের জায়গা কমে গেলে তখন এটা অটোম্যাটিক স্টপ হয়ে যাবে।

আপনি যদি এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে চান তাহলে গুগল প্লে-স্টোর থেকে বিনামূল্যে ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

Download

৬। Capture Recorder – ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

Capture Recorder

ক্যাপচা রেকর্ডার হলো আরো একটি ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার যেটা আপনি গুগল প্লে-স্টোর থেকে কোনো টাকা ছাড়াই ডাউনলোড করতে পারবেন। এই অ্যাপটি দিয়ে আপনি গেমস, ভিডিও ও অডিও কল রেকর্ড করতে পারবেন।

এই অ্যাপের মধ্যে এমন কিছু ফিচার যুক্ত করা হয়েছে যেগুলো দেখলে আপনার কাছে অনেক আকর্শনীয় মনে হবে। যেমন- ফ্লোটিং উইন্ডোজ, নোটিফিকেশন বার এবং ভিডিও রেকর্ডিং চলাকালীন সময় স্ক্রিনশট নেওয়া ইত্যাদি।

আপনি যখন ভিডিও রেকর্ড করা শেষ করবেন তখন চাইলে সরাসরি যেকোনো মিডিয়াতে শেয়ার করে দিতে পারবেন।

যেকোনো সময় ভিডিও রেকর্ডিং করতে কোনো লিমিট দেওয়া হবে না, যদি আপনার মেমোরি কার্ড খালি থাকে তাহলে এটা চলতে থাকবে।

খুব দ্রতু স্ক্রিনশট নিতে পারবেন ও এর মধ্যে থাকা টুলস ব্যবহার করে এডিট করতে পারবেন। কোনো ভিডিও ক্লিপ এডিট করার জন্য রয়েছে ভিডিও এডিট টুলস।

এছাড়া চাইলে ভিডিও এডিটিং টুলস ব্যবহার করার মাধ্যমে রেকর্ড করা ভিডিওর মধ্যে মিউজিক ও স্টিকার যুক্ত করতে পারবেন। সুতরাং বলা যেতে পারে এটা জনপ্রিয় ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস গুলোর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে টিকে আছে।

Download

৭। Super Screen Recorder–No Root REC & Screenshot

Super Screen Recorder ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

ভালো মানের ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে এটাও অন্তর্ভুক্ত। এই অ্যাপনি নামে যেমন কাজেই তেমন সুপার স্ক্রিন রেকর্ডার। ডাউনলোড করে মোবাইলে ব্যবহার করলেই বুঝতে পারবনে অ্যাপটি আপনার জন্য কতটা ভালো মানের।

ভিডিও রেকর্ডিং করার অ্যাপস দিয়ে মানুষ নানা রকম ভিডিও ক্লিপ করে থাকে। তাই অবশ্যই ভালো মানের ভিডিও ক্লিপ করার জন্য এই অ্যাপস বেশ চমৎকার।

যারা গুগল প্লে-স্টোরে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে রেখেছেন তাঁরা এই এপস সম্পূর্ণ ফ্রিতে ডাউনলোড করে মোবাইলে ইন্সটল করতে পারবেন।

আপনার মোবাইল ডিভাইসের স্ক্রিন থেক উচ্চ মানের ভিডিও ক্লিপ তৈরি করতে সক্ষম হবে অ্যাপটি। এই অ্যাপটির অন্যতম একটি ভালো ফিচার হলো আপনি অ্যানিমেটেড গিফ ভিডিও বানাতে পারবেন।

Download

৮। ADV Screen Recorder – ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

ADV Screen Recorder ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

এডিভি একটি স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস যেটা গুগল প্লে-স্টোর থেকে নামিয়ে বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে। জনপ্রিয় ভিডিও রেকর্ডিং করার এপস গুলোর মধ্যে এটিও অন্তর্ভুক্ত।

বর্তমানের যেকোনো ধরণের অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জন্য এটা অনেক ভালো অ্যাপস ও ব্যবহারযোগ্য।

গুগল প্লে-স্টোরে এই অ্যাপস প্রায় ১ কোট বার ডাউনলোড করা হয়েছে। তাহলে আপনি এখন বুঝতেই পারছেন অ্যাপটি কটা জনপ্রিয়।

এই অ্যাপটি খুব অল্প এমবি নিয়ে তৈরি করা হয়েছে। আর এটা অনেক শক্তিশালী ও কখনো ক্রাশ হয় না।

আপনি দুই ভাবে এই অ্যাপ দিয়ে ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন (অ্যাডভান্সড ও ডিফল্ট)। আপনি যখন চাইবেন ভিডিও রেকর্ডিং স্টপ করে রাখতে পারবেন ও স্টার্ট করতে পারবেন।

যেকোনো কালারে আপনি ভিডিও রেকর্ডিং করার সময় স্ক্রিনে ড্রয়িং করতে পারবেন। সামনের ও পিছনের উভয় ক্যামেরা দিয়েই ভিডিও রেকর্ডিং করা যাবে। এছাড়া ভিডিও এডিট করারও বিশেষ কিছু টুলসের ব্যবহার করতে পারবেন।

Download

৯। Quick Video Recorder – Background Video Recorder

Quick Video Recorder ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস

দ্রুত ভিডিও রেকর্ড করার জন্য এই অ্যাপস ডাউনলোড করতে পারেন। কুইক ভিডিও রেকর্ডার সফটওয়্যারটি তৈরি করেছেন Kimcy929।

আপনার মোবাইল দিয়ে স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ডিং করতে এই অ্যাপস আপনাকে সাহায্য করবে। ক্যামেরার শাটার সাউন্ড অন অফ করার জন্য অপশন পাবেন ও ফুল এইচডি আকারে ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন।

খুব অল্প সাইজের এই অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড ৫ ভার্শনের নিচে কোনো ডিভাইসে সাপোর্ট করবে না। কারণ এটা বর্তমান আধুনিক ভার্শনের একটি এপস।

প্লে-স্টোরে এটা প্রায় ৫ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ ডাউনলোড করে ব্যবহার করেছে। স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করার পরে ট্রিম করতে পারবেন ও নাইট মোড পাবেন যেটার মাধ্যমে ভিডিওটি অন্যরকম রূপ দিতে সক্ষম হবে। এছাড়া আপনি আরো পাবেন হোয়াইট অটো ব্যালেন্সিং।

শুধু তাই নয়, আপনি চাইলে ভিডিও রেকর্ড করার সময় ক্যামেরাটি শিডিউল করে রাখতে পারবেন। যদিও অ্যাপটির মধ্যে ভিডিও রেকর্ড করার জন্য কোনো সময়সীমা দেওয়া হয়নি কিন্তু আপনি চাইলে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত রেকর্ড করার জন্য সময় সেট করে নিতে পারবেন।

আপনি আরো ভিডিও রেকর্ডিং করার জন্য একাধিক রেজোলিউশন সিস্টেম পাবেন ও ফোনের স্টোরেজ ফুল হয়েগেলে অটোম্যাটিক ভিডিও রেকর্ড অফ হয়ে যাবে।

Download

১০। Mobizen Screen Recorder for SAMSUNG

Mobizen Screen Recorder for SAMSUNG ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার

যারা স্যামসাং ইউজার তাদের জন্য রয়েছে সু-খবর। সম্পূর্ণ ফুল এইচডি ও স্মুথ ভিডিও রেকর্ডিং করার জন্য এই সফটওয়্যার সব থেকে বেস্ট হবে স্যামসাং ইউজারদের জন্য।

গেমস খেলার সময় এই অ্যাপ দিয়ে আপনি স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। শুধু তাই নয়, আপনি আরো নানা রকম ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন মবিজেন অ্যাপস দিয়ে।

গুগল প্লে-স্টোরে এটা বিনামূল্যে পাওয়া যাবে। এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে হলে আপনার মোবাইলের ভার্শন থাকতে হবে ভালো ও এটা বিভিন্ন সময় আপডেট চাইবে। সব সময় আপনি এর ল্যাটেস্ট ভার্শনটি ইউজ করার চেষ্টা করবেন কারণ এটার পুরান ভার্শন অনেক সময় কাজ করে না।

স্যামসাং ইউজারদের জন্য এই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে। আর তাই আপনি যদি একজন স্যামসাং ইউজার হন তাহলে আমি আপনাকে রিকুমেন্ট করব এই অ্যাপটি ব্যবহার করার জন্য। এটার মাধ্যে স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করলে অনাকাঙ্ক্ষিত কোনো সাউন্ড বা নয়েস আসবে না। যার জন্য আপনার ভিডিওর সাউন্ড হবে অনেক স্মুথ ও পরিষ্কার। এই অ্যাপ দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করলে আপনার ডিভাইস রুট করার প্রয়োজন হবে না। আপনি এই ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে আসলেই অনেক মাজ পাবেন। এর মধ্যে আরো নানা রকম বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

Download

১১। SUPER Recorder – Screen Recorder, Capture, Editor

SUPER Recorder

একটি ইউনিক পাওয়ারফুল স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ডার অ্যাপস ডাউনলোড করার জন্য এটা আপনার জন্য বেস্ট। এন্ড্রয়েড ইউজারদের কাছে এটা একটি নতুন ভিডিও রেকর্ডিং সফটওয়্যার।

এই সফটওয়্যারের নাম দেখেই আপনি বুঝতে পেরেছেন এটা কেমন একটি এপস।

স্ক্রিন রেকর্ডার ও ভিডিও থেকে ক্যাপচা নেওয়া ও ভিডিও এডিট করা ইত্যাদি অ্যাপটির মধ্যে বিদ্যমান রয়েছে।

অ্যাপটি যদিও এখনো অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের কাছে ভালো মতো জনপ্রিয়তা লাভ করেনি কিন্তু এটা অনেকই ব্যবহার করে ভালো মন্তব্য প্রকাশ করছে। আশা করা যায় অ্যাপটি খুব শীঘ্রই জনপ্রিয় হয়ে উঠবে।

কোনো রুট পার্মিশন ছাড়াই অ্যাপটি দিয়ে স্মুথ ও এইচডি ভিডিও রেকর্ড করা সম্ভব। আপনি খুব সহজেই ভিডিও করার সময় স্ক্রিনশট নিতে পারবেন এবং ইমেজটি এডিট করতে পারবেন।

আসলেই সুপার রেকর্ডার অ্যাপস নামের সাথে কাজের অনেক মিল রয়েছে।

Download

১২। RecMe Screen Recorder

RecMe Screen Recorder ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস

অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ইউজারদের জন্য এই তালিকায় স্ক্রিনের ভিডিও রেকর্ড করার সর্বশেষ অ্যাপস। আশা করি অ্যাপটি আপনার কাছে ভালো লাগবে।

আপনি আপনার মোবাইলের প্লে-স্টোর থেকে এটা ফ্রিতে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। অনেকই আছে প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে পারে না বা প্রবেশ করতে পারে না। কিন্তু এর জন্য আপনার একটি জিমেইল একাউন্ট তৈরি করে নিতে হবে।

এই অ্যাপটি শুধু ভিডিও রেকর্ড করা যায় বললে ঠিক হবে না, কারণ এটার মাধ্যমে আপনি অডিও রেকর্ড ও বিভিন্ন এডিট করতে পারবেন।

অ্যাপটির মধ্যে কোনো সমস্যা দেখা দিলে ডেভেলপারকে জানাতে পারেন। কারণ এটা একটি নতুন ভিডিও রেকর্ডিং অ্যাপস। এখনো সবার কাছে তেমন একটা সারা ফেলেনি।

কোনো রুট ছাড়াই অ্যাপটি ইউজ করতে পারবেন ও মাইক্রোফোনের মাধ্যমে ভিডিও রেকর্ডিং করতে পারবেন। আর এটা ব্যবহার করার আরো একটি সুযোগ পাবেন যেটা হলো- কোনো ওয়াটারমার্ক থাকবে না ভিডিওর মধ্যে।

Download

উপসংহার

সর্বশেষ আমি আপনাদের কিছু কথা বলে চাই তা হলো- ভিডিও রেকর্ডিং করার এই অ্যাপস গুলো আপনি নিঃসন্দেহে ব্যবহার করতে পারবেন। প্রতিটি এপস আপনি গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন। আর আপনার যেন খোঁজা না লাগে তারজন্য আমি ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিয়েছি। অনেকই ভিডিও রেকর্ডিং করার সফটওয়্যার গুলো খুঁজে থাকে। যদিও এগুলো প্লে-স্টোরে পাওয়া যাবে কিন্তু এই ১২টি অ্যাপ থেকে যেকোনো একটি পছন্দ মতো ব্যবহার করলে আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো হবে।

Leave a Comment